“উন্নয়ন ভাবনা” পরিকল্পনার চূড়ান্ত বিশ্লেষণ চলছে

একটু চিন্তা করা যাক। প্রচলিত ধারনায় মসজিদ একটি নামাজ পড়ার জায়গা। বিশ্ববিদ্যালয় একটি ক্লাস, পরীক্ষা আর ডিগ্রী প্রদানের জায়গা। হোটেল একটি থাকার জায়গা। একটা সময় ছিল যখন ইসলামী সমাজ ব্যবস্থায় মসজীদ ছিল সমাজ ব্যবস্থার মূল কেন্দ্র যেখানে বিদ্যা চর্চা থেকে শুরু করে বিচার আচার, বিজ্ঞান গবেষণা, বিয়ে সাদি পর্যন্ত হতো। আমাদের অজ্ঞানতা মসজিদের কর্মকাণ্ডকে সংকুচিত করেছে। এবার আসুন বিশ্ববিদ্যালয়ের কথায়। জ্ঞানীরা বলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল কাজ ছিল গবেষণা আর গবেষণা লব্দ জ্ঞানকে বাস্তবে রূপ দানের জন্য ইন্ডাস্ট্রিতে জ্ঞানকে ছড়িয়ে দেয়া আর সেই অর্জিত জ্ঞানের ভিত্তিতে রাস্ট্র ও সমাজকে নেতৃত্ব দেবার জন্য প্রয়োজনীয় মানুষ তৈরি করা। এবার আসুন হোটেলের কথায়। এখন হোটেল মেহমানের থাকার জায়গাই শুধু নয়। হোটেল কনফারেন্স, মিন্টিং, এক্সিভিশন, এমিউজমেন্ট, ব্যবসা প্রসারেরও জায়গা। এতগুলো কথা বললাম এই জন্য যে, যুগে যুগে মানুষ তার প্রয়োজনে প্রতিষ্ঠানকে নূতন ভাবে সাজিয়েছে। আর সেই যুক্তিকে মাথায় রেখে আমরাও মিরপুর ক্লাবকে নূতন ধারনায় প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে চাই। উন্নয়ন ভাবনা সেই নতুন প্রতিষ্ঠান গড়ার প্রথম পদক্ষেপ। “উন্নয়ন ভাবনা” পরিকল্পনার চূড়ান্ত বিশ্লেষণ চলছে। প্রচলিত ক্লাব কনসেপ্টের একেবারে বাইরের কিছু।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Previous Article
Next Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *